ZamzamITPostAd

পেশকারের কাজ কি

ভূমিকা

প্রিয় পাঠক আজকাল অনেকেই পেশকারের কাজ কি বিষয় নিয়ে জানতে চান। আপনিও হয়তো অনেক খোঁজাখুঁজির পর নিশ্চয়ই পেশকারের কাজ কি কি তা জানার জন্যই আমাদের এই সাইটটিতে এসেছেন।
পেশকারের কাজ কি
হ্যাঁ আজকে আমি সঠিকভাবে পেশকারের কাজ কি নিয়ে আলোচনা করব। চলুন এই লেখার মূল বিষয়বস্তু সম্পর্কে জানতে পুরো আর্টিকেলটি পড়ে ফেলি।

পেশকারের কাজ কি

পেশকারের কাজের প্রকৃতি তাদের কর্মস্থলের উপর নির্ভর করে। তবে, সাধারণভাবে, পেশকারদের দায়িত্ব হলো:
পেশকারের প্রশাসনিক কাজ:
  • নথিপত্র ও আবেদনপত্র গ্রহণ, নিবন্ধন, সংরক্ষণ ও বিতরণ করা।
  • মিটিং ও অনুষ্ঠানের আয়োজন ও ব্যবস্থাপনা করা।
  • অফিসের সরঞ্জাম ও সরবরাহের তত্ত্বাবধান করা।
  • কর্মচারীদের বেতন ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা প্রদানে সহায়তা করা।
  • অফিসের আর্থিক লেনদেন পরিচালনা করা।
পেশকারের আইনি কাজ:
  • আদালতের কার্যক্রমে সহায়তা করা পেশকারের কাজ।
  • মামলার নথিপত্র তৈরি ও রক্ষণাবেক্ষণ করা।
  • আদালতের আদেশ ও রায় প্রয়োগে সহায়তা করা।
  • আইনি পরামর্শ প্রদান করা (কিছু ক্ষেত্রে)।
পেশকারের অন্যান্য কাজ:
  • গ্রাহকদের সাথে যোগাযোগ স্থাপন ও তাদের প্রশ্নের উত্তর দেওয়া।
  • অফিসের ওয়েবসাইট ও সামাজিক মিডিয়া পরিচালনা করা।
  • গবেষণা ও তথ্য সংগ্রহ করা পেশকারের কাজ।
  • প্রয়োজনে অন্যান্য কর্মচারীদের সহায়তা করা।
পেশকারদের কাজের পরিবেশও তাদের কর্মস্থলের উপর নির্ভর করে। কিছু পেশকার অফিসে কাজ করে, অন্যরা আদালতে, জমি অফিসে, বা অন্যান্য সরকারি প্রতিষ্ঠানে কাজ করে।
বাংলাদেশে পেশকারের কিছু উল্লেখযোগ্য কর্মস্থল হল:
  • আদালত
  • জমি অফিস
  • ভূমি রেকর্ড ও জরিপ অধিদপ্তর
  • রেজিস্ট্রার অফিস
  • কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট অ্যাপিলেট ট্রাইব্যুনাল
  • বিভিন্ন সরকারি মন্ত্রণালয় ও দপ্তর
পেশকার হওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় যোগ্যতা:
  • সাধারণত, SSC বা সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়া প্রয়োজন
  • কিছু ক্ষেত্রে, আইন বিষয়ে ডিগ্রি থাকা বা আইনি কোর্স সম্পন্ন করা প্রয়োজন
  • কম্পিউটার ব্যবহারে দক্ষতা
  • ভালো যোগাযোগ ও interpersonal দক্ষতা
  • বাংলা ভাষায় দক্ষতা
পেশকারের বেতন:
  • পেশকারের বেতন তাদের অভিজ্ঞতা, শিক্ষাগত যোগ্যতা এবং কর্মস্থলের উপর নির্ভর করে। বাংলাদেশে, একজন পেশকারের গড় মাসিক বেতন প্রায় ২০,০০০- ৩৫,০০০/- টাকা।
পেশকারের চাকরির সুযোগ:
  • বাংলাদেশে সরকারি প্রতিষ্ঠানে পেশকারদের চাহিদা বেশি। SSC বা সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে এবং প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে আপনি এই পেশায় যোগ দিতে পারেন।

সার্টিফিকেট সহকারী কাজ কি

সার্টিফিকেট সহকারীর কাজ:
আজ উপরের আলোচনায় আমরা দেখেছি পেশকার এর কাজ এবং পেশকারের কাজ কি। এখন আমরা জানব সার্টিফিকেট সহকারী কাজ কি। সার্টিফিকেট সহকারী কাজ নির্ভর করে তিনি কোন প্রতিষ্ঠানে কাজ করছেন তার উপর। সার্টিফিকেট সহকারী বিভিন্ন ধরণের প্রতিষ্ঠানে কাজ করে থাকেন, তাই তাদের কাজের বিবরণ প্রতিষ্ঠানভেদে কিছুটা ভিন্ন হতে পারে। 
তবে, সাধারণভাবে, একজন সার্টিফিকেট সহকারীর কিছু গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বের মধ্যে রয়েছে:
সার্টিফিকেট সহকারী কাজ সার্টিফিকেট তৈরি ও প্রদান:
  • আবেদনকারীদের কাছ থেকে প্রয়োজনীয় তথ্য ও নথিপত্র সংগ্রহ করা।
  • সঠিক তথ্য অনুযায়ী সার্টিফিকেট তৈরি করা সার্টিফিকেট সহকারী কাজ ।
  • সার্টিফিকেট যাচাই ও অনুমোদন করার জন্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কাছে উপস্থাপন করা।
  • সার্টিফিকেট প্রিন্ট করা ও আবেদনকারীদের কাছে হস্তান্তর করা সার্টিফিকেট সহকারী কাজ ।
সার্টিফিকেট সহকারী কাজ আবেদনপত্র ও নথিপত্র পরিচালনা:
  • সার্টিফিকেটের জন্য আবেদনপত্র গ্রহণ, নিবন্ধন ও সংরক্ষণ করা।
  • প্রয়োজনীয় নথিপত্র যাচাই করা সার্টিফিকেট সহকারী কাজ ।
  • নথিপত্রের অভাব থাকলে আবেদনকারীদের সাথে যোগাযোগ করা।
  • নথিপত্র সঠিকভাবে ফাইল করা একজন সার্টিফিকেট সহকারী কাজ ।
ডেটাবেস ব্যবস্থাপনা সার্টিফিকেট সহকারী কাজ :
  • সার্টিফিকেট সম্পর্কিত তথ্য ডেটাবেসে প্রবেশ করা ও হালনাগাদ রাখা।
  • ডেটাবেস থেকে প্রয়োজনীয় তথ্য সংগ্রহ করা ও প্রদান করা।
  • সার্টিফিকেট সহকারী কাজ ডেটাবেসের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা।
অন্যান্য সার্টিফিকেট সহকারী কাজ :
  • ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগ স্থাপন ও তাদের নির্দেশাবলী বাস্তবায়ন করা।
  • অফিসের কর্মীদের সাথে সহযোগিতা করা।
  • প্রয়োজনে অন্যান্য দায়িত্ব পালন করা সার্টিফিকেট সহকারী কাজ ।
কিছু নির্দিষ্ট প্রতিষ্ঠানে সার্টিফিকেট সহকারীর কাজের কিছু নির্দিষ্ট উদাহরণ:
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সার্টিফিকেট সহকারী কাজ : 
  • সার্টিফিকেট সহকারীরা ছাত্রদের জন্ম সার্টিফিকেট, টিসি সার্টিফিকেট, বেগুনি কার্ড, চরিত্র সার্টিফিকেট ইত্যাদি তৈরি ও প্রদান করে।
সরকারি অফিসে সার্টিফিকেট সহকারী কাজ : 
  • সার্টিফিকেট সহকারী কাজ সার্টিফিকেট সহকারীরা জন্ম সার্টিফিকেট, মৃত্যু সার্টিফিকেট, বসবাস সার্টিফিকেট, ভূমি সার্টিফিকেট ইত্যাদি তৈরি ও প্রদান করে।
বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে সার্টিফিকেট সহকারী কাজ : 
  • সার্টিফিকেট সহকারীরা কর্মচারীদের কর্মক্ষমতা সার্টিফিকেট, অভিজ্ঞতা সার্টিফিকেট, আয় সার্টিফিকেট ইত্যাদি তৈরি ও প্রদান করা সার্টিফিকেট সহকারী কাজ ।
সার্টিফিকেট সহকারীর কাজের জন্য সাধারণত মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষাগত যোগ্যতা প্রয়োজন হয়। কিছু প্রতিষ্ঠানে উচ্চতর শিক্ষাগত যোগ্যতা বা কম্পিউটার প্রশিক্ষণের প্রয়োজন হতে পারে।

পেশকারের কাজ কি

উপরের আলোচনায় আমরা দেখেছি সার্টিফিকেট পেশকার এর কাজ কি। এখন আমরা জানব পেশকারের কাজ কি। পেশকারের কাজের প্রকৃতি নির্ভর করে তিনি কোন প্রতিষ্ঠানে কাজ করছেন তার উপর।
তবে, সাধারণভাবে, একজন পেশকারের কিছু গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বের মধ্যে রয়েছে:
পেশকারের প্রশাসনিক কাজ:
  • নথিপত্র ও আবেদনপত্র গ্রহণ, নিবন্ধন, সংরক্ষণ ও বিতরণ করা।
  • আদেশ, সার্টিফিকেট, পরবর্তী পদক্ষেপের জন্য নথি প্রস্তুত করা।
  • মিটিং ও অনুষ্ঠানের আয়োজন ও ব্যবস্থাপনা করা।
  • অফিসের আসবাবপত্র ও সরঞ্জামাদি রক্ষণাবেক্ষণ করা।
  • অফিসের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করা।
আইনি সহায়তায় পেশকারের কাজ:
  • আদালত ও আইনি কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগ স্থাপন ও সমন্বয় রক্ষা করা।
  • মামলার নথিপত্র ও প্রমাণ সংগ্রহ ও সংরক্ষণ করা।
  • আইনি পরামর্শদাতাদের সহায়তা করা।
  • আদালতের কার্যক্রমে সহায়তা করা।
পেশকারের অন্যান্য কাজ :
  • ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগ স্থাপন ও তাদের নির্দেশাবলী বাস্তবায়ন করা।
  • অফিসের কর্মীদের সাথে সহযোগিতা করা।
  • অফিসের ওয়েবসাইট ও সোশ্যাল মিডিয়া পরিচালনা করা।
  • প্রয়োজনে অন্যান্য দায়িত্ব পালন করা।
কিছু নির্দিষ্ট প্রতিষ্ঠানে পেশকারের কাজের কিছু নির্দিষ্ট উদাহরণ:
পেশকারের কাজ গুরুত্বপূর্ণ কারণ এটি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সুষ্ঠু ও দক্ষভাবে কার্যক্রম পরিচালনায় সহায়তা করে। পেশকাররা ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের প্রয়োজনীয় তথ্য ও সহায়তা প্রদান করে এবং বিভিন্ন প্রশাসনিক ও আইনি কাজ সম্পন্ন করে।
আদালতে পেশকারের কাজ: 
  • পেশকাররা বিচারকদের সহায়তা করেন, মামলার নথিপত্র পরিচালনা করেন এবং আদালতের কার্যক্রমে সহায়তা করেন।
সরকারি অফিসে পেশকারের কাজ: 
  • পেশকাররা বিভিন্ন সরকারি সেবা প্রদানে সহায়তা করেন, যেমন জন্ম সার্টিফিকেট, জমিজমা, ট্যাক্স প্রদান ইত্যাদি।
ব্যাংকে পেশকারের কাজ: 
  • পেশকাররা গ্রাহকদের অ্যাকাউন্ট খোলার, লেনদেন করার এবং অন্যান্য ব্যাংকিং সেবা গ্রহণের ক্ষেত্রে সহায়তা করেন।
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পেশকারের কাজ: 
  • পেশকাররা শিক্ষকদের সহায়তা করেন, ছাত্রদের নথিপত্র পরিচালনা করেন এবং বিদ্যালয়ের প্রশাসনিক কাজে সহায়তা করেন।
পেশকারের কাজের জন্য সাধারণত মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষাগত যোগ্যতা প্রয়োজন হয়। কিছু প্রতিষ্ঠানে উচ্চতর শিক্ষাগত যোগ্যতা বা পেশাদার প্রশিক্ষণের প্রয়োজন হতে পারে।

সার্টিফিকেট পেশকার কি

সার্টিফিকেট পেশকার কে?
একজন সার্টিফিকেট পেশকার হলেন সরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত একজন কর্মচারী যিনি জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের অধীনে কাজ করেন। এছাড়াও বিভিন্ন দপ্তরে সার্টিফিকেট পেস্ট কার কাজ করে থাকেন।
তাদের দায়িত্বের মধ্যে রয়েছে:
  • জন্ম নিবন্ধন, মৃত্যু নিবন্ধন, বিবাহ নিবন্ধন, ইত্যাদি সার্টিফিকেট প্রদানের আবেদনপত্র গ্রহণ ও যাচাই করা।
  • আবেদনপত্রের সাথে সংযুক্ত কাগজপত্রের সত্যতা যাচাই করা।
  • সার্টিফিকেট প্রস্তুত করা এবং প্রদান করা।
  • জেলা প্রশাসকের নির্দেশাবলী বাস্তবায়ন করা।
সার্টিফিকেট পেশকারের কাজের ধরন:
  • ক্লারিক্যাল: আবেদনপত্র, কাগজপত্র, এবং সার্টিফিকেট তৈরি ও রক্ষণাবেক্ষণ।
  • ডেটা এন্ট্রি: আবেদনকারীদের তথ্য কম্পিউটারে ইনপুট করা।
  • জনসেবা: আবেদনকারীদের তথ্য প্রদান এবং তাদের আবেদন প্রক্রিয়ায় সহায়তা করা।
সার্টিফিকেট পেশকার হওয়ার যোগ্যতা:
  • মাধ্যমিক স্তরে উত্তীর্ণ হতে হবে।
  • বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় সাবলীল হতে হবে।
  • কম্পিউটারের প্রাথমিক জ্ঞান থাকতে হবে।
সার্টিফিকেট পেশকারদের বেতন:
সার্টিফিকেট পেশকারদের বেতন সরকার কর্তৃক নির্ধারিত হয়। বেতন নির্ভর করে কর্মচারীর শিক্ষাগত যোগ্যতা, অভিজ্ঞতা, এবং পদবীর উপর। সার্টিফিকেট পেশকার বা সার্টিফিকেট সহকারি এই পোস্টটি ১৩ থেকে ১৬ নম্বর গ্রেড এর মধ্যে হয়ে থাকে। তাছাড়াও বিভিন্ন দপ্তর ভিত্তিক এদের কাজের ধরন এবং বেতন কমবেশি হতে পারে।
সার্টিফিকেট পেশকারদের চাকরির সুযোগ:
সার্টিফিকেট সহকারি কে ? সার্টিফিকেট সহকারী কাজ কি? সার্টিফিকেট সহকারীর পরীক্ষার প্রশ্ন এই বিষয়গুলো আলোচনার পাশাপাশি এখন আমরা আলোচনা করি পেশকারদের কোথায় কোথায় আছে। সার্টিফিকেট পেশকারদের জন্য সরকারি প্রতিষ্ঠানে প্রচুর চাকরির সুযোগ রয়েছে। জেলা প্রশাসকের কার্যালয় ছাড়াও, পৌরসভা, উপজেলা পরিষদ, ইত্যাদি স্থানীয় প্রতিষ্ঠানেও সার্টিফিকেট পেশকারদের নিয়োগ দেওয়া হয়।

সার্টিফিকেট পেশকার পরীক্ষার প্রশ্ন

বাংলাদেশের বিভিন্ন দপ্তরের বিভিন্ন পোস্টের পরীক্ষা ধরন পদ্ধতি এবং মানবন্টন বিভিন্ন ধরনের হয়ে থাকে। আসুন আজ সার্টিফিকেট পেস্কার পরীক্ষার প্রশ্ন এবং এর বিষয়বস্তু ও ধরণ নিয়ে আলোচনা করি। বাংলাদেশের জেলা প্রশাসকের কার্যালয় সার্টিফিকেট পেশকার পদের জন্য লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষার প্রশ্ন বহুমুখী পছন্দ (MCQ) ধরণের হয়।
পেশকারের বা সার্টিফিকেট পেশকার পরীক্ষায় ভালো করার পথে নিম্মরূপ
  • সঠিক এবং সুন্দরভাবে প্রস্তুতি নিতে হবে।
  • বাংলা এবং ইংরেজি ব্যাকরণে দক্ষতা অর্জন করতে হবে।
  • গণিত পরীক্ষা ভালো করতে হবে।
  • সাধারণ জ্ঞানে প্রচুর দক্ষতা অর্জন করতে হবে।
  • তাছাড়াও কম্পিউটারে ভালো দক্ষতা অর্জন করতে হবে।
এ কাজগুলো যদি আপনি করতে পারেন, তাহলে সার্টিফিকেট পেশকার, সার্টিফিকেট সহকারী বা পেশকারের জন্য পরীক্ষায় বসে ভালো ফলাফল করতে পারেন এবং সার্টিফিকেট পেশকার বা পেশকারের চাকরি আপনার হতে পারে।

সার্টিফিকেট পেশকার পরীক্ষার বিষয়বস্তু

বাংলা: সার্টিফিকেট বা সার্টিফিকেট পেশকার এর পরীক্ষায় বাংলা বিষয়ের যে প্রশ্নগুলো হতে পারে সেই বিষয়গুলোর মধ্যে ব্যাকরণ অংশ থেকে বেশি প্রশ্ন হতে পারে।
  • ব্যাকরণ
  • রচনা
  • অনুবাদ
  • সাধারণ জ্ঞান
ইংরেজি: বাংলার পাশাপাশি ইংরেজি বিষয়েও প্রশ্ন হয়ে থাকে সুতরাং ইংলিশ ব্যাকরণ বিষয়ে ভালোভাবে সচেতন হয়ে প্রস্তুতি নিলে ভালো করা সম্ভব।
  • ব্যাকরণ
  • রচনা
  • অনুবাদ
  • সাধারণ জ্ঞান
সাধারণ জ্ঞান: সকল ধরনের চাকরির পরীক্ষায় সাধারণ জ্ঞান থেকে প্রশ্ন হয়ে থাকে সার্টিফিকেটই বা সার্টিফিকেট পরীক্ষার ক্ষেত্রেও সাধারণ জ্ঞান থেকে প্রশ্ন হয়ে থাকে। সুতরাং সাধারণ জ্ঞান অংশ থেকে ভালোভাবে প্রস্তুতি নিলে এ অংশে ভালো নম্বর পাওয়া যায়।
  • বাংলাদেশের ইতিহাস
  • ভূগোল
  • রাষ্ট্রনীতি
  • অর্থনীতি
  • বিজ্ঞান
  • কম্পিউটার
অফিস পদ্ধতি: সার্টিফিকেট সরকারি বা সার্টিফিকেট পেশকার এর অফিস পরিচালনার জন্য বিভিন্ন কারিগরি গানের জন্য হয়ে থাকে। সে কারণে ফাইলিং কম্পিউটারের টাইপিং এ সম্পর্কিত কাজগুলো খুব ভালোভাবে জানা উচিত।
  • ফাইলিং
  • টাইপিং
  • কম্পিউটারের প্রাথমিক জ্ঞান

সার্টিফিকেট পেশকার কিছু নমুনা প্রশ্ন

সার্টিফিকেট পেশকার কিছু নমুনা প্রশ্ন আপনার জন্য তুলে ধরার চেষ্টা করলাম। আসুন সার্টিফিকেট সহকারী এর কাজ বা সার্টিফিকেট পেস্কার এর কাজ এর পাশাপাশি সার্টিফিকেট পেস্কার বা সার্টিফিকেট সহকারীর প্রশ্ন কেমন হতে পারে সে বিষয় নিয়ে আলোচনা করি।
বাংলা:
  • "সে" সর্বনামের কতটি ভেদ আছে?
  • "অবশ্যই" শব্দের সমার্থক শব্দ কোনটি?
  • "The pen is mightier than the sword." - এই বাক্যটির বাংলা অনুবাদ কী?
ইংরেজি:
  • "A stitch in time saves nine." - এই বাক্যটির অর্থ কী?
  • "The opposite of love is not hate, it is indifference." - এই বাক্যটির লেখক কে?
  • "What is the capital of Bangladesh?"
সাধারণ জ্ঞান:
  • বাংলাদেশের বর্তমান রাষ্ট্রপতি কে?
  • বাংলাদেশের সর্বোচ্চ পর্বত কোনটি?
  • বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার রঙ কী?
  • বিস্তারিত পরীক্ষার প্রস্তুতির জন্য এখানে ক্লিক করুন।
অফিস পদ্ধতি:
  • একটি চিঠির উপর সঠিকভাবে ঠিকানা কীভাবে লিখতে হয়?
  • ফাইলের মলাট কিভাবে তৈরি করতে হয়?
  • MS Word-এ টেবিল তৈরি করার পদ্ধতি কী?
  • বিস্তারিত পরীক্ষার প্রস্তুতির জন্য এখানে ক্লিক করুন
পরীক্ষার প্রস্তুতি:
  • সরকারি চাকরির প্রস্তুতি সংক্রান্ত বই পড়ুন।
  • বিগত বছরের প্রশ্ন সমাধান করুন।
  • অনলাইনে নমুনা প্রশ্ন ও উত্তর অনুশীলনের জন্য এখানে ক্লিক করুন।
  • ইংরেজি ও বাংলা ভাষার উপর দক্ষতা অর্জন করুন।
  • কম্পিউটারের প্রাথমিক জ্ঞান অর্জন করুন।

পেশকার শব্দের অর্থ - পেশকার সমার্থক শব্দ

পেশকার শব্দের অর্থ: সার্টিফিকেট সহকারী কাজ কি
বিচারকের সহকারী: পেশকার মূলত একজন বিচারকের সহকারী, যিনি আদালতের কার্যক্রম পরিচালনা, মামলার কাগজপত্র সংগ্রহ ও উপস্থাপন এবং বিচারকের নির্দেশাবলী বাস্তবায়নের দায়িত্ব পালন করেন।
অন্যান্য অর্থ:
  • কার্যালয়ের সহকারী
  • ম্যানেজার
  • প্রতিনিধি
  • এজেন্ট
পেশকার শব্দের সমার্থক শব্দ:
  • সহকারী
  • মুখতিয়ার
  • নায়েব
  • কার্যকর্তা
  • কর্মচারী
  • প্রতিনিধি
  • উপদেষ্টা
  • পরামর্শদাতা
  • সহচর
  • সঙ্গী
ব্যবহারের উদাহরণ:
  • বিচারকের পেশকার মামলার কাগজপত্র উপস্থাপন করছেন।
  • কোম্পানির পেশকার বাজারে তাদের পণ্যের প্রচার করছেন।
  • মন্ত্রীর পেশকার গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তে তাকে পরামর্শ দিচ্ছেন।
দ্রষ্টব্য:
উপরের আলোচনায় পেশকারের কাজ কি সার্টিফিকেট পেশকার কি সার্টিফিকেট সহকারী কি এবং এদের বেতন শিক্ষাগত যোগ্যতা এবং পরীক্ষার ধরন নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো। এখন পেশকার শব্দের সঠিক সমার্থক শব্দ নির্ভর করে এর প্রেক্ষাপটের উপর।
কিছু সমার্থক শব্দের নির্দিষ্ট অর্থ ও ব্যবহার রয়েছে।  এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চাইলে নিচের ভিডিওটি দেখে আসতে পারেন।

উপসংহার

প্রিয় পাঠক আজ পেশকারের কাজ কি তা নিয়ে আলোচনা করলাম। আগামীতে অন্য কোনো ভালো টপিক নিয়ে হাজির হবো। আশা করছি উপরের পেশকারের কাজ কি আলোচনা আপনার ভালো লেগেছে। যদি কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানান আর আপনার ফ্রেন্ড সার্কেলে এই কনটেন্টটি শেয়ার করতে ভুলবেন না। আমাদের ফলো করে সাথেই থাকুন।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

জমজম আইটিরনীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url